গাজায় যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানালেন পোপ ফ্রান্সিস

গাজায় সংঘাত বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান ক্যাথলিক ধর্মযাজক পোপ ফ্রান্সিস। এই যুদ্ধ বন্ধ করতে তিনি বিশ্বের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, যথেষ্ট হয়েছে। এবার বন্ধ করুন। ভ্যাটিকান সিটির সেন্ট পিটার্স স্কয়ারে বিশ্বাসীদের সম্বোধন করে শিশুদের ওপর এই সংঘাতের পরিণতি সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করেন পোপ ফ্রান্সিস।

গত ৭ অক্টোবর হামাসের অভিযানের সময় যেসব লোকজনকে অপহরণ করা হয় সেসব বন্দিকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি। পোপ ফ্রান্সিস বলেন, ফিলিস্তিন এবং ইসরায়েলের চলমান সংঘাতের কারণে হাজার হাজার মানুষ মৃত্যু, জখম হওয়া এবং বাস্তুচ্যুত জনগণের কষ্ট আমি উপলব্ধি করতে পারছি।

তিনি বলেন, আপনারা কি মনে করেন যে, এভাবে আপনারা একটি উন্নত বিশ্ব গড়ে তুলতে পারবেন? আপনারা কি আসলেই মনে করেন যে, এভাবে শান্তি অর্জন করা সম্ভব হবে? যথেষ্ট হয়েছে। আমাদের সবার এখন বলা উচিত যে, যথেষ্ট হয়েছে। এবার যুদ্ধ বন্ধ করুন।

গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর আগ্রাসনে মৃত্যুর মিছিল থামছেই না। গত ২৪ ঘণ্টায় ইসরায়েলি বাহিনীর বোমা হামলায় শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। ফলে সেখানে ইতোমধ্যেই নিহতের সংখ্যা ৩০ হাজার ৫০০ ছাড়িয়ে গেছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেখানে কমপক্ষে ৩০ হাজার ৫৩৪ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। গত ৭ অক্টোবরের পর ইসরায়েলি বাহিনীর অভিযান শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত এই অবরুদ্ধ উপত্যকায় ৭১ হাজার ৯২০ জন আহত হয়েছে।

এছাড়া ইসরায়েলি আগ্রাসনের মুখে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার কামাল আদওয়ান হাসপাতালে ১৫ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই অপুষ্টি ও পানিশূন্যতাজনিত কারণে মারা গেছে। প্রাণহানির শঙ্কায় রয়েছে আরও কয়েকটি শিশু।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কুদরা এক বিবৃতিতে বলেছেন, কামাল আদওয়ান হাসপাতালে অপুষ্টি ও পানিশূন্যতার কারণে ১৫ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বৈদ্যুতিক জেনারেটর বন্ধ হয়ে যাওয়া এবং অক্সিজেন সরবরাহ না থাকায় সেখানে যথাযথ চিকিৎসা সম্ভব হচ্ছে না। এর ফলে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে থাকা আরও ছয় শিশুর জীবনশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

Check Also

ইসরায়েলি হামলায় গাজায় একই পরিবারের ১৩ শিশু নিহত

দক্ষিণ গাজার রাফাহ অঞ্চলে ইসরাইলি বিমান হামলায় এক পরিবারের ১৩ জন শিশুসহ দুই জন নারী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *