চাঁদে একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করতে চায় চীন ও রাশিয়া

কোনো একদিন চাঁদে মানুষ বাস করবে, এই আশায় ২০৩৩ থেকে ২০৩৫ সালের মাঝে চাঁদে একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করতে চায় চীন ও রাশিয়া। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) রাশিয়ায় বিশ্ব যুব উৎসবের এক আয়োজনে দেশটির মহাকাশ সংস্থা রসকসমস প্রধান ইউরি বরিসভ এ কথা বলেছেন। খবর রয়টার্সের।

বরিসভ বলেন, চীনা সহকর্মীদের সঙ্গে যৌথভাবে আজ আমরা সত্যিকার অর্থে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছি ২০৩৩-২০৩৫ সালের মধ্যে চন্দ্রপৃষ্ঠে একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পাঠানো ও স্থাপনের বিষয়ে।

তিনি জানান, ভবিষ্যতে চাঁদে বসতি স্থাপন হলে সেখানে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য সোলার প্যানেল যথেষ্ট নয়। তাই তারা পারমাণবিক শক্তির কথা ভেবেছেন।

এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি মানুষের স্পর্শ ছাড়াই স্থাপন করতে হবে বলে জানান তিনি। তাই পারমাণবিক শক্তিতে চালিত একটি মালবাহী মহাকাশযান তৈরির পরিকল্পনাও করছে রাশিয়া।

এর আগে বেশ কয়েকবার মহাকাশে উচ্চাকাঙ্ক্ষীর কথা জানালেও সফলতার মুখ দেখেনি রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা। এছাড়া চীন গত মাসে জানিয়েছে, তারা চাঁদে প্রথম চৈনিক মহাকাশচারী পাঠাতে চায় ২০৩০ সালের মধ্যে।

Check Also

ইরানের হামলায় ইসরায়েলের পাশে থাকবে না যুক্তরাষ্ট্র: হোয়াইট হাউজ

যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলকে বলেছে যে, তারা ইরানের বিরুদ্ধে কোনো প্রতিশোধমূলক হামলায় যোগ দেবে না। হোয়াইট হাউজের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *