টিটিসির অধ্যক্ষ‘র নির্দেশেই অবাধ ঘুষ বানিজ্য!ভিডিওসহ

টিটিসির অধ্যক্ষ‘র নির্দেশেই অবাধ ঘুষ বানিজ্য!ভিডিওসহ

টিটিসির অধ্যক্ষ‘র নির্দেশেই অবাধ ঘুষ বানিজ্য!ভিডিওসহ > টিটিসির অধ্যক্ষ‘র নির্দেশেই অবাধ ঘুষ বানিজ্য!ভিডিওসহ ।। সাগর বৈদ্য ॥ বরিশাল টিটিসির অধ্যক্ষ‘র যোগসাজে প্রকাশ্যে আদায় করা হচ্ছে অর্থ। এবিষয় সাংবাদিকরা তথ্য জানতে চাইলে দেওয়া হয়েছে, বিভ্রন্তিকর ভূল তথ্য। অনিয়মে জর্জরিত বরিশাল টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টি.টি.সি)।

টাকা আছে যার! ড্রাইভিং লাইন্সেস আছে তার! পরীক্ষায় পাস না করেই পাওয়া যাচ্ছে, ড্রাইভিং লাইন্সেস। ড্রাইভিং প্রশিক্ষণে কর্মরত প্রশিক্ষক রাকিব সহ একাধিক শিক্ষকের ভিডিও আসে সময়ের বার্তা‘র হাতে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ড্রাইভিং লাইন্সেস এর জন্য প্রশিক্ষন নিতে আসা শিক্ষার্থীদের কাছে প্রকাশে অর্থ দাবী করছেন রাকিব, এমনকি ওই অর্থ উত্তোলন করতেও দেখা গেছে।

অনলাইনে ফ্রি শিক্ষা

জুতা আবিষ্কার কবিতার জ্ঞানমূলক ও অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর-PDF

প্রবাসী কল্যান ও বৈদেশিক কর্মস্থান মন্ত্রনালয় এর আওতাধীন “দেশ বিদেশ” মটর ড্রাইভিং কোর্স সেশন এর শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রকাশ্যে অর্থ দাবী করছেন কর্মরত প্রশিক্ষক।

ভিডিওতে আরো দেখা যায়, টি টি সি এর ড্রাইভিং প্রশিক্ষক রাকিব নিজেই পাশ করিয়ে দেওয়ার কথা বলে শিক্ষার্থীদের কাছে সরাসরি অর্থ দাবী করছেন। সেই মোতাবেক পরের দিন সকালে নেয়া হয় টাকা।

এ বিষয় ক্যামেরার সামনে ও সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি টিটিসির প্রশিক্ষক রাকিব। অভিযোগ আছে, এই অর্থের ভাগ সমান ভাগে টিটিসির অধ্যক্ষ হুমায়ুন কবিরও পেয়ে থাকেন।

প্রশিক্ষক রাকিব কর্তৃক অনিয়মের কথা যেনেও টিটিসির অধ্যক্ষ হুমায়ুন কবির বিষয়টি ধামা-চাপা দিতে সময়ের বার্তাকে ভূল তথ্য প্রদান করার চেষ্টা করেন।

তিনি বলেন, এটা তার বিভাগের ঘটনা না। চাপিয়ে দিতে চাঁন মহিলা টিটিসি বিভাগের দিকে। মহিলা টিটিসির অধ্যক্ষ যাচাইবাছাই করে সময়ের বার্তাকে নিশ্চিত করেছেন, এটা মহিলা টিটিসির কোন বিষয় না। দিন দিন দুর্নীতির আখড়া হয়ে উঠছে বরিশাল টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টি.টি.সি)।

অনলাইনে ফ্রি শিক্ষা

MCQ PDF অধ্যায় চতুর্থ: ssc business studies assignment

বরিশাল জেলার বি আর টি এর আওতাধীন ড্রাইভিং লাইন্সেস এর জন্য আবেদন করার পর,পরবর্তী পদক্ষেপ অনুযায়ী পরীক্ষা নেওয়া হয়ে থাকে বরিশাল সি এন্ড বি রোডস্থ টি টি সি এর মাধ্যমে।

উল্লেখ্য, প্রবাসী কল্যান ও বৈদেশিক কর্মস্থান মন্ত্রনালয় এর আওতাধীন “সেফ ও দেশ বিদেশ” নামক ২ টি মটর ড্রাইভিং কোর্স সেশন এর শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রকাশ্যে অর্থ দাবী করা কতটা শোভনীয়।

টি টি সি দুর্নীতির মূল উৎস কোথায়? এটাই প্রশ্ন এখানে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের। ভিডিও দেখতে আমাদের ফেইসবুক ও ইউটিউব এ (somoyerbarta) দেখতে পারেন।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন। এবং আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেইজবুক পেইজে এখানে ক্লিক করে।

Check Also

ঈদে নৌযাত্রায় যাত্রীদের ঝামেলার শঙ্কা

ঢাকা-বরিশাল নৌরুটের বিলাসবহুল লঞ্চের আগাম টিকিট বিক্রি শেষ পর্যায়ে হলেও যাত্রীদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *