ট্রাকচালকের পায়ে গুলি করায় অস্ত্রসহ আটক ৬

রাজধানীর খিলগাঁওয়ে ট্রাকচালকের পায়ে গুলি করার ঘটনায় অস্ত্রসহ ছয় সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতাররা হলেন- রমজান আহম্মেদ নয়ন (৩৪), যুবরাজ (৩৫), মো. ইব্রাহিম হাওলাদার (৩৮), মকবুল হোসেন মুকুল (৪০), সাজ্জাদ হোসেন প্রান্ত (২৭) ও রিফাতুল্লাহ নাঈম (৩৫)।

সোমবার (১৮ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, গত ১০ মার্চ ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় খিলগাঁও থানায় একটি মামলা হয়। মামলার পর এ ঘটনার ছায়াতদন্ত শুরু করে ডিবি মতিঝিল বিভাগ। তদন্তের একপর্যায়ে আজ রাজধানীর সবুজবাগ ও বাসাবো এলাকায় অভিযান চালিয়ে জড়িত ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৫টি অস্ত্র, ৬টি ম্যাগজিন ও ৪৯ রাউন্ড গুলি জব্দ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ১০ মার্চ ভোরে সবুজবাগ থানা বাইকদিয়া এলাকায় কয়েকজন সন্ত্রাসী একটি বালুভর্তি ড্রামট্রাকের গতিরোধ করে ভাঙচুর চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীদের মধ্যে একজন পিস্তল বের করলে ট্রাকে অবস্থানরত ট্রাকের মালিক মো. গোলাম ফারুক ও চালক আলম ভয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় সন্ত্রাসীরা চালক আলমকে ধরে মারধর করতে থাকে এবং একজন তার ডান পায়ে গুলি করে। এ ঘটনায় সবুজবাগ থানায় একটি মামলা রুজু হলে ডিবি খিলগাঁও জোনাল টিম ঘটনাটির ছায়াতদন্ত শুরু করে।

গ্রেফতারদের জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে হারুন অর রশীদ বলেন, সবুজবাগ থানার বাইকদিয়া এলাকার জমি ক্রয়-বিক্রয় ও বালু ভরাট ব্যবসা নিয়ে বিবাদমান দুটি গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। গ্রুপ দুটির একটির নেতৃত্বে রয়েছে বাবুল এবং আরেকটির নেতৃত্বে রয়েছে নজরুল। ঘটনার কিছুদিন আগে বাবুল গ্রুপ বাইকদিয়া এলাকায় একটি লোহার গেট ও কিছু সিসি ক্যামেরা স্থাপন করে, যাতে নজরুল গ্রুপ ওই এলাকায় বালু ভরাট করতে না পারে। ডিবির হাতে গ্রেফতাররা হলেন নজরুল গ্রুপের সদস্য।

ঘটনার দিন তারা বাইকদিয়াতে বাবুল গ্রুপের লাগানো সিসি ক্যামেরা ও লোহার গেট ভাঙতে একত্রিত হয় নজরুল গ্রুপের সন্ত্রাসীরা। ঘটনার দিন তারা লোহার গেট ভাঙার সময় এ পথ দিয়ে যাওয়া একটি ট্রাক গতিরোধ করে। এ সময় ট্রাকের গতিরোধ করলে দুর্ঘটনাবসত তাদের সহযোগী হিরার গায়ে ট্রাকের আঘাত লাগে। এতে গ্রেফতার রমজান ক্ষিপ্ত হয়ে ড্রাইভার আলমের পায়ে গুলি করে। পরবর্তীতে তারা আহত হিরাকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

ডিবিপ্রধান আরও বলেন, মূলহোতা রমজান আহম্মেদ নয়নের পিসিপিআর পর্যালোচনায় দেখা যায়, তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক, ডাকাতি, দস্যুতা ও গোলাগুলিসহ ডজনখানেক মামলা রয়েছে। সে খিলগাঁও, বাসাবো, সবুজবাগ, মুগদা ও মাদারটেক এলাকার একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। মূলত ভাড়াটে সন্ত্রাসী হিসেবে অস্ত্রবাজি করাই তার মূল পেশা।

Check Also

ইউপি সদস্য হত্যা মামলার পলাতক প্রধান আসামি গ্রেফতার

চাঁদপুরের মতলব এলাকায় সুরুজ নামে এক ইউপি সদস্য হত্যা মামলার পলাতক প্রধান আসামি কবির হোসেনকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *