দক্ষিণবঙ্গের প্রথম ভাসমান সেতু এখন মরণফাঁদ

লিটু দেবনাথ, পটুয়াখালী।। পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলাধীন পাখিমারা বাজার সংলগ্নে দক্ষিনবঙ্গের সর্ব প্রথম ভাসমান সেতু এখন যেনো মরণফাঁদে পরিনত হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ২০২০ সালের ৫ আগষ্ট নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পাখিমারা খালের ১১৬ মিটার আয়রন ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে। সম্পূর্ণভাবে অচল হয়ে পড়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা।শুরু হয় মজিদপুর, এলেমপুর এবং কুমিরমারা সহ আশেপাশের গ্রামের মানুষের চরম ভোগান্তি।

আরো পড়ুন:  মেয়র সাদিকের হার-জিত! যে ৭টি অভিযোগ তার বিরুদ্ধে

এখানকার গ্রামের মানুষের পাখিমারা বাজার, নীলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র উপায় ছিলো পূর্বের আয়রন ব্রিজটি। ব্রিজটি ভেঙে পড়ায় রোগী এবং স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাগামী শিক্ষার্থীরা পড়ে চরম ভোগান্তির মধ্যে। কৃষকরাও তাদের কৃষিপন্য পাখিমারা বাজারে নিতে সমস্যায় পড়ে যায়।

খালের উপর পুনরায় ব্রিজ নির্মাণ সময়সাপেক্ষ হওয়ায় স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেদের উদ্যোগে ও নিজেদের অর্থায়নে তারা অবশেষে প্লাস্টিকের ড্রাম ও কাঠ ব্যবহার করে প্রায় আড়াই লাখ টাকা ব্যয় করে একটি ভাসমান সেতু নির্মাণ করে।এই ভাসমান সেতুটিই দক্ষিণ বাংলার সর্বপ্রথম ভাসমান সেতু।

এই ভাসমান সেতুটিও আজ ধ্বংসের পথে। কাঠগুলোতে পচন ধরেছে। সেতুটি এখন আর আগের মত মজবুত নেই। এখন এর উপরে উঠলে এটি দোলে। যে কোনো সময় ব্রিজটি ভেঙে যেতে পারে। স্কুল ও মাদ্রাসাগামী ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের জন্য এটি এখন একটি মরণফাঁদ। এমতাবস্থায় ভুক্তভোগী গ্রামবাসীগণ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। তারা অনতিবিলম্বে পুনরায় একটি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করে তাদের সমস্যার সমাধানের জন্য সরকারের কাছে জোড় দাবী জানিয়েছেন।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন এবং আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেইজবুক পেইজে এখানে ক্লিক করে।

Check Also

বরিশাল মহানগর এনডিবি‘র সভাপতি ফুয়াদ সম্পাদক ফয়সাল

মোঃ ফরহাদ হোসেন ফুয়াদকে সভাপতি ও মোঃ ফয়সাল আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৪ সদস্য বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *