নগরীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিঃস্ব পরিবার

নগরীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিঃস্ব পরিবার

মোঃ ইমন খন্দকার হৃদয়: দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ একটি খাবার হোটেল এর উপর ভর করে চলছিল নগরীর ব্রজমোহন কলেজ ডিগ্রি হোস্টেল এর পিছন গেটে মোঃ শাহিন খান এর পরিবার। এই খাবার হোটেল টি সেখানেই অবস্থিত। তবে বৃহস্পতিবার রাত ৩ টায় ঘটে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ড যার ফলে পুড়ে ছাই হয়ে যায় পুরো দোকান। দোকানে খাবার সহ নগদ অর্থ ছিল, এখন সব হারিয়ে অসহায় পরিবার টির মাথায় হাত।

রাত ৩ টার দিকে হোটেলে আগুন জ্বলতে দেখতে পায় হোস্টেল এর শিক্ষার্থীরা পরে এলাকাবাসী সজাগ হলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে, অবশেষে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের কাছে জানতে চাইলে তারা দৈনিক আজকের সময় বার্তাকে বলেন,” মূলত রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত তবে জায়গাটি বর্ধিত হওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণ কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে তবু আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেও কোন সম্পদ রক্ষা করতে পারেনি”।

এই খাবার হোটেলের স্বত্বাধিকারী ও ক্ষতিগ্রস্ত মোঃ শাহিন খান দৈনিক আজকের সময়ের বার্তা কে বলেন,” আমার এই দোকান টির বয়স ৬ বছর মুলত এটাই আমার সম্বল। আমি ১ লক্ষ টাকা চলতি ঋণ নিয়ে ব্যবসায় পরিচালন করছিলাম, হঠাৎ এমন বিপদে আমার বলার কোন ভাষা নাই।

আমার এই হোটেলে মোট ৫ লক্ষ টাকার মতন ক্ষয়- ক্ষতি হয়েছে। আমার শেষ সম্বলটুকু আজ নেই,আমি পরিবার নিয়ে কি করবো? কিভাবে ঋণ পরিশোধ করবো? আমি সেই চিন্তায় দিশেহারা “। এই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ানো সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে, বরিশাল জেলা প্রশাসন এর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) প্রশান্ত কুমার দাস দৈনিক আজকের সময়ের বার্তা কে বলেন,” আমরা এই অগ্নিকান্ড সম্পর্কে অবগত ছিলাম না, আপনাদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। এই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে অবশ্যই বরিশাল জেলা প্রশাসন পাশে আছে। তাদের নগদ অর্থ প্রদান সহ প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে”।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২০ নং ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর মোঃ শাকিব বিপ্লব দৈনিক আজকের সময়ের বার্তা কে জানান,” আমি ব্যক্তিগত ভাবে তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবো এবং সিটি কর্পোরেশন এর পক্ষ থেকে কোন সহযোগীতা করা হবে কিনা সে সম্পর্কিত আমি জানিনা । তবে আমি এই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে আছি সর্বদা”।

এই অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত মোঃ শাহিন খান NGO আশা থেকে ১ লক্ষ টাকা ঋণ গ্রহণ করেছে, এই ঋণ পরিশোধ নিয়ে তিনি এখন বিপাকে। বরিশাল আশা ব্রাঞ্চ এর পক্ষ থেকে কোন সহযোগীতা ও এই ঋণ সম্পর্কে জানতে চাইলে বরিশাল সদর আশা ব্রাঞ্চ এর সিনিয়র নন- অফিসার মোঃ ফিরোজ খান সময়ের বার্তা কে বলেন,” এরকম এর ঘটনা সত্যিই দুঃখজনক।

আশা ব্রাঞ্চ কর্তৃপক্ষ জায়গাটি পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদের ঋণ সম্পর্কিত বিষয়ে অবশ্যই কিছু অর্থ মওকুপ ও প্রয়োজনীয় সহযোগীতা করা হবে বলে তিনি আশাবাদী “।

Check Also

ওসির ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মঠবাড়িয়ার জাপা নেতা

বরিশাল অফিস॥ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সাধারন মানুষকে বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে তাদের গ্রেফতার করে আবার ছাড়িয়ে টাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *