ফরচুন মিজানের দুর্নীতির ফাইল দুদকে

ফরচুন মিজানের দুর্নীতির ফাইল দুদকে

ফরচুন মিজানের দুর্নীতির ফাইল দুদকে।। স্টাফ রিপোর্টার ॥ ফরচুন মিজান কর্তৃক নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে বিসিকে ৭১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার রাস্তা ও কালভার্ট নির্মাণে অনিয়মের বিষয় নিয়ে, সময়ের বার্তাকে সংবাদ প্রকাশের পর এবার দুর্নীতি দমন কমিশন,

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন, বরিশাল সিটি কপোরের্শন,এর মেয়র সহ ৭ দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আবুল হোসেন নামে এক ব্যক্তি।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, বরিশাল বিসিক শিল্প নগরীর উন্নয়ন মূলক এর জন্য ৭১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার কার্যক্রম চলে আসছে। উক্ত টাকায় বিসিক এর রাস্তা মেরামত, কালভার্ট নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন এর কাজ চলমান।

যা বরিশাল থেকে প্রকাশিত দৈনিক সময়ের বার্তা পত্রিকার মাধ্যমে জানতে পারেন ডিজিএম, সহকারী প্রকৌশলী ও প্রজেক্ট ইনচার্জ সহ স্থানীয় ঠিকাদার ও ফরচুন সু কোম্পানির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান এর যোগসাজে সরকারী ৭১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার কার্যক্রমে অনিয়ম-দুর্নীতি করে সরকারের কোটি কোটি টাকা আত্মাসাত করে আসছেন।

অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়টি যথাযত তদর্ন্তপূবক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন এর চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন এর চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন এর প্রকল্প ব্যবস্থাপনা ও বাস্তবায়ন বিভাগ,

বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার, বরিশাল জেলা প্রশাসক, বরিশাল সদর আসন এর এমপি ও পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং বরিশাল সিটি কপোরের্শন, এর মেয়র বরাবর বাংলাদেশ ডাক বিভাগ এর রেজিষ্ট্রি করে লিখিত অভিযোগ পত্র দায়ের করেছেন, সাথে গত ২৪ জানুয়ারী সময়ের বার্তায় প্রকাশিত প্রথম পাতায় বরিশালে ফরচুন মিজানের কব্জায় বিসিক! শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

ফরচুন মিজানের দুর্নীতির ফাইল দুদকে

উক্ত সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে, বরিশালের আলোচিত-সমালোচিত এর নাম ফরচুন মিজান! বরিশাল বিসিক শিল্প নগরীতে সু কোম্পানীর ফেক্টরী খোলার পর থেকেই নামটি সবার মুখে মুখে। নানা সময়ে নানা বিষয় নিয়ে পত্রিকার শিরোনামে আসতে দেখা গেছে। এবার শিরোনামে আসছেন ঠিকাদারী কাজের নামে সরকারী কোটি কোটি টাকার সম্পদ আত্মসাত এর বিষয় নিয়ে।

নাম মাত্র কাজ করে প্রায় ৭২ কোটি টাকার কাজের গরমিল নিয়ে। প্রভাবশালী হওয়াতে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। ঠিকাদার নির্দেশকে দৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে নিজের মতোই অনিয়ম করে যাচ্ছেন মিজান, এমন অভিযোগ বরিশাল বিসিক এর সহকারী প্রকৌশলী কামরুজ্জামান সহ একাধিক কর্মকর্তাদের।

তারা আরো বলেন, ফরচুন সু কোম্পানীর চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজানের কাছে জিম্মি বরিশাল বিসিক শিল্প নগরী। সরকারী নির্দেশ ওপেক্ষা করে হরিলুটে নামছেন তিনি।

২০১৭ সালে বরিশাল বিসিক শিল্প নগরীর রাস্তা, ড্রেনেজ ও কালভার্ট নির্মান ও সংস্কার করার জন্য শিল্প মন্ত্রনালয় থেকে ৭১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার বরাদ্দ করা হয়। প্রায় ৭২ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজে দেখা মিলছে বিশাল দুর্নীতির চিত্র।

সরজমিনে দেখা যায়, এক নম্বার তো দুরের কথা, ৩ নম্বর ইট এর চেয়েও ইট,বালু সহ নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মান করা হচ্ছে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন এর বরিশাল শিল্প নগরী এর উন্নয়ন মূলক কাজ। দুর্নীতি দমন কমিশন একজন উধ্বর্তন কর্মকর্তা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক,

ফরচুন মিজানের দুর্নীতির ফাইল দুদকে

ওই কর্মকর্তা সময়ের বার্তা বলেন, ইতিপূর্বে সময়ের বার্তার মাধ্যমে বরিশাল বিসিক এ উন্নয়নমূলক কাজের অনিয়ম-দূর্নীতির যে সংবাদটি প্রকাশ হয়েছে, বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে, অতি শ্রীঘ্রই তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মিজানের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের পর সময়ের বার্তা‘র হাতে আসতে শুরু করেছেন মিজান ও মিজানের ক্যাডার বাহীনির মাধ্যমে শ্রমিক নির্যাতন ও নি¤œমানের মালামাল দিয়ে সরকারী কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের

প্রতিবাদ করায় স্থানীয়দের ওপরে শারীরিক এবং মানষিক নির্যাতন সহ হামলা-মামলার ঘটনার চঞ্চ্যলকর তথ্য। যা থাকছে, আগামী পর্বে। ভিডিওসহ সংবাদ দেখতে চোখ রাখুন সময়ের বার্তার ফেইসবুক ও ইউটিউব এ।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন। এবং আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেইজবুক পেইজে এখানে ক্লিক করে।

Check Also

ঈদে নৌযাত্রায় যাত্রীদের ঝামেলার শঙ্কা

ঢাকা-বরিশাল নৌরুটের বিলাসবহুল লঞ্চের আগাম টিকিট বিক্রি শেষ পর্যায়ে হলেও যাত্রীদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *