এমদাদ হোসেন

সঠিক প্রার্থী নির্বাচন, আনবে দেশে সুশাসন: এমদাদ হোসেন

হারুন শাহ: বাবার সেই রেখে যাওয়া স্বপ্ন! ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় নিয়ে জীবনের ঝুঁকি অতিক্রম করে বুক ভরা আশা আর কোটি কোটি  মানুষের ভালোবাসা নিয়ে দেশে ফিরে এসেছিলেন প্রিয় নেত্রী। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে।

এই সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে ৬নং ধনিয়া ইউনিয়ন এর গরিব-দুঃখী মানুষের প্রিয়জন, ভোলার অভিভাবক, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী ভোলা সদর ১ আসন থেকে বারবার নির্বাচিত মাননীয় সংসদ সদস্য, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের মহানায়ক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একান্ত রাজনৈতিক সচিব, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ইতিহাসের জীবন্ত কিংবদন্তী নেতা ভোলার মাটি ও মানুষের অহংকার, জনাব আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয়ের অত্যন্ত আস্থাভাজন, এমদাদ হোসেন কবির।

আধুনিক ধনিয়া ইউনিয়ন গড়ার স্বপ্ন নিয়ে যিনি সব সময় বিভোর থাকেন, সততা যোগ্যতা ও দক্ষতার, সাথে যিনি এত বছর চেয়ারম্যান পদে থেকে ধনিয়া ইউনিয়ন এর নিপীড়িত ও বঞ্চিত মানুষের আস্থার পথিক। যিনি সব সময় শোষিত মানুষের পক্ষে থাকেন । তিনি বর্তমান সময়ের একজন সৎ, যোগ্যতা ও দক্ষতার সাথে ইডিয়াস ইউনিয়ন পরিচালনা করে আসছেন তিনি আপোষহীন যোদ্ধা।

তিনি সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে ধনিয়া ইউনিয়ন বাসির মনে জায়গা করে নিয়েছেন। যার মন সবসময়ের জন্যই নির্যাতিত নিপীড়িত জনসাধারনের জন্য কাঁদে তিনি ধনিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান  এমদাদ হোসেন কবির। আসছে আগামী ইউপি নির্বাচনে ধনিয়া ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের দোয়া ও ভালোবাসার পছন্দের মানুষ সৎ ও নিষ্ঠাবান ধনিয়া ইউনিয়ন এর বর্তমান চেয়ারম্যান এমদাদ হোসেন কবির।

আমরা আশা রাখি জননেতা জনাব আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদ মহোদয়, ধনিয়া ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের হৃদয়ের কাঙ্খিত ভাষা বুঝবেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আমাদের নেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয় ধনিয়া ইউনিয়নে এমন কোন জায়গা নেই যেখানে আমার নেতা উন্নয়ন করেনি পাকা রাস্তা থেক শুরু করে করে ধনিয়া ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে এবং বিশেষ করে ধনিয়া ইউনিয়ন নদী ভাঙ্গন রোধে জিও ব্যগ সহ ব্যপক উন্নয়ন হয়েছে। এজন্য আমি নেতাকে ধন্যবাদ জানাই।

Check Also

শিশু তাওসিনকে বাচাঁতে এগিয়ে আসুন

শিশু তাওসিনকে বাচাঁতে এগিয়ে আসার সবার কাছে সাহয্য চাইলেন, বাবা হারানো শিশুর মা ছালমা বেগম। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *