১০ লাখ টাকার ফুটবল,বিতরণ উজিরপুর প্রকৌশলীর নেতৃত্বে!
১০ লাখ টাকার ফুটবল,বিতরণ উজিরপুর প্রকৌশলীর নেতৃত্বে!

১০ লাখ টাকার ফুটবল বিতরণ, উজিরপুর প্রকৌশলীর নেতৃত্বে!

১০ লাখ টাকার ফুটবল,বিতরণ উজিরপুর প্রকৌশলীর নেতৃত্বে!> উজিরপুরে প্রকৌশলীর নেতৃত্বে হরিলুট ১০ লাখ টাকার ফুটবল! অআয়রণ ব্রীজ-রাস্তা সংস্কার অশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফ্যান বিতরণ অতদন্ত করে ব্যবস্থা- ইউএনও ।। এম. লোকমান হোসাঈন ॥ ১০ লাখ টাকার ফুটবলসহ ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ দেখিয়ে বিতর্ক জন্ম দিয়েছেন উজিরপুর উপজেলা প্রকৌশলী রবীন চক্রবর্তী।

এছাড়া, নামমাত্র কাজ দেখিয়ে রাস্তা ও আয়রন ব্রীজ সংস্কার সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ফ্যান বিতরণের নামে সরকারী প্রায় দের কোটি টাকার বেশি এডিপি প্রকল্প‘র অর্থ আত্মসাত করে নেন উজিরপুর উপজেলার প্রকৌশলীর নেতৃত্বে কতিপয় ঠিকাদার ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

আইনকে বৃদ্ধঙ্গুলী দেখিয়ে বছরের পর বছর এভাবে সরকরী অর্থ হরিলুট করার অভিযোগ উঠে ওই উজিরপুর উপজেলা প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে। ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী এডিপি‘র তথ্য বিবারণে এমনটাই বেড়ি আসছে।

অনলাইনে ফ্রি শিক্ষা

উক্ত অর্থ বছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী এডিপি‘র তথ্য বিবারণের ১৮ নং ক্রমিকে দেখা যায়,উজিরপুর উপজেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ফুটবল বিতরণ বাবাদ দুই লাখ টাকা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার রন্টু বাইন এর মাধ্যমে ও

১৩ নং ক্রমিকে উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে খেলা ধুলার দুই লাখ টাকার সামগ্রী বরাকোঠা ইউপি সদস্য মো: হারুন অর রশিদ এবং হারতা ইউপি সদস্য মো: ফারুক হোসেন এর মাধ্যমে ২৬ নং ক্রমিকে উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বৈদ্যুতিক পাখা ও খেলার সামগ্রী বিতরন দেখানো হয়েছে।

প্রশ্ন উঠে একই অর্থবছরে ৫ লাখ টাকার ফুটবল ও খেলার সামগ্রী একটি উপজেলার মধ্যে কোথায় বিতরণ করা হয়েছে? তার কোন সদত্তোর দিতে পারেননি, উপজেলা প্রকৌশলী ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার রন্টু বাইন। ২০২০-২০২১ অর্থ বছরেও অপূর্ব কুমার বাইন এর মাধ্যমে আরো দুই লাখ টাকার ফুটবল বিতরণ দেখানো হয়েছে।

এদিকে, সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ করে,সময়ের বার্তাকে উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আ.মজিদ সিকদার (বাচ্চু) জানান, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি এডিপি এর অনিয়ম কম-বেশি হতে পারে।

তবে সেটা তার অগোচরে। তিনি কোন অনিয়মের সাথে জড়িত নন। উজিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারিয়া তানজিন সময়ের বার্তাকে বলেন, অপরাধ যে কেউ করুক না কেন, উক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ১২ নং ক্রমিকে সাতলা পটিবাড়ী স্পটিং ক্লাব বাবদ ১লাখ ও ১৭ নং ক্রমিকে উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ক্রিড়া সামগ্রী বাবদ দুই লাখ এবং ২০ নং ক্রমিকে উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ফুটবল ও ভলিবল বিতরণ বাবদ আরো দুই লাখ টাকা দেখানো হয়েছে। গত দুই অর্থ বছরে উজিরপুর উপজেলায় ফুটবল, ভলিবলসহ খেলা সামগ্রী বাবদ প্রায় ১০ লাখ টাকার বেশি বিতরণ দেখানো হয়েছে।

২০২১-২০২২ অর্থ বছরের একই তালিকার,বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী এডিপি‘র তথ্য বিবারণের ১ নং ক্রমিকে উত্তর সাতলা ঘন্ডেশ্বর পাকা রাস্তা হতে ফকির বাড়ী পযর্ন্ত মেসার্স মেহেদী হাসান এর মাধ্যমে রাস্তা সিসি ঢালাই করণ বাবদ প্রায় তিন লাখ,

৫ নং ক্রমিকে গুঠিয়া ডহরপাড়া মফিজের বাড়ীর সামনে, মেসার্স দাস এন্টারপ্রাইজ এর মাধ্যমে আয়রন ব্রীজ নির্মাণ বাবাদ ৪ লাখ ৭৫ হাজার, ১২ নং ক্রমিকে উজিরপুর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,

ধর্মী ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান বৈদ্যুতিক ফ্যান বিতরণ বাবাদ উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রানী শীল এর মাধ্যমে আরো দুই লাখ টাকা খরচ করা হয়েছে।

১৫ নং ক্রমিকে খলদকুল মোল্লা বাড়ীর সামনে ব্রীজ, ভুইয়া বাড়ীর সামনে ব্রীজ ও পঞ্চগ্রাম স্কুলের সামনে ব্রীজ এবং ডহপাড়া হাওলাদার বাড়ীর সামনে ব্রীজ এর এ্যাপ্রোচ মেরামত বাবাদ দের লাখ টাকার কাজ করেছেন, গুঠিয়ার ইউপি সদস্য মো: ছায়েম হোসেন মোল্লা।

২১ নং ক্রমিকে শিকারপুর ইউনিয়ন পরিষদে আসবাবপত্র সরবরাহ বাবদ দুই লাখ টাকার কাজ করেছেন, শিকারপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: সরোয়ার হোসেন। বামরাইল ইউপি চেয়ারম্যান মো: ইউসুফ হাওলাদার এর মাধ্যমে দের লাখ টাকার কাজ করেছেন,মুগাকাঠী শাহাদাত মোল্লা বাড়ীর দক্ষিন পার্শ্বে বক্স কালভার্ট নির্মাণ ও কাজিরা সাইফুল তালুকদার বাড়ীর দক্ষিন পার্শ্বে আরো একটি বক্স কালভার্ট নির্মাণ করেছেন, যা ২৩ নং ক্রমিকে উল্লেখ করা আছে।

এছাড়া, ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী এডিপি‘র তথ্য বিবারণের ৩ নং ক্রমিকে গাজীরপাড় উমার আলী পুলিশের বাড়ীর রাস্তা সলিং করণ ও দরগাবাড়ী মসজিদ-আনোয়ার হোসেন মাষ্টার বাড়ী রাস্তা সলিং এবং

বড়াকোঠা ইউনিয়ন ইনষ্টিটিউট (ডাবেরকুল) এর ক্লাসরুম ও শিক্ষক রুম মেরামতকরণ বাবাদ ৫ লাখ ২২ হাজার ৫শত টাকা। ৫ নং ক্রমিকে বামরাইল ইউনিয়নের আটিপাড়া মিজানুর রহমান কবির বাড়ীর সামনের রাস্তা সলিংকরণ।

অনলাইনে ফ্রি শিক্ষা

১০ লাখ টাকার ফুটবল বিতরণ উজিরপুর প্রকৌশলীর নেতৃত্বে!

১৪ নং ক্রমিকে শিকারপুর ইউনিয়ন পরিষদ এর খাদ্য গুদাম নির্মাণ বাবদ দুই লাখ, ১৮ নং ক্রমিকে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৈদ্যুতিক ফ্যান বিতরণ বাবদ দুই লাখ, ১৯ নং ক্রমিকে উপজেলার হতদরিদ্রদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ বাবদ দুই লাখ ও ২১ নং ক্রমিকেও আরো দুই লাখ টাকার ফ্যান বিতরণ করেছেন উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ৭৭ লাখ ৪৫ হাজার ৫শত ৮০ টাকা এবং ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে ৮০ লাখ তিন হাজার সাত শত টাকা। গত দুই অর্থ বছরে প্রায় দের কোটি টাকার বেশি অর্থ বরাদ্দ ছিলো। যার অধিকাংশই কাজ সঠিক ভাবে না করে উক্ত বরাদ্দকৃত অর্থ উপজেলা প্রকৌশলী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা আত্মসাত করে নেন।

এত টাকার ফুটবল ও বলিবল বিতরণের বিষয় জানতে চাইলে কোন সদুত্তোর দিতে, পারেননি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার বাইন। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রানী শীল এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন। এবং আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেইজবুক পেইজে এখানে ক্লিক করে।

Check Also

ঈদে নৌযাত্রায় যাত্রীদের ঝামেলার শঙ্কা

ঢাকা-বরিশাল নৌরুটের বিলাসবহুল লঞ্চের আগাম টিকিট বিক্রি শেষ পর্যায়ে হলেও যাত্রীদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *